ভ্যাটের অভিযোগ কোথায়, কিভাবে করবেন?

আপনি পণ্য কিনলেন, আর দামের সাথে ভ্যাট নিলেন দোকানি। ক্যাশ মেমোতে ভ্যাট উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু মেমোর ওপরে ভ্যাট নিবন্ধন নেই, দোকানি দেয়নি আপনাকে ভ্যাট চালান। আপনার দেওয়া ভ্যাট রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা হয়নি। একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আপনার অভিযোগ জানানো উচিত। কিন্তু কোথায় অভিযোগ করবেন?

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ওয়েবসাইটের পাশাপাশি এনবিআরের অধীনে সারাদেশের ভ্যাট কমিশনারেটের ওয়েবসাইট, মেইলে অভিযোগ জানাতে পারবেন। কোনো এলাকার আইন শৃঙ্খলার বিষয় দেখার জন্য যেমন পুলিশ বিভাগের জন্য থানা আছে, তেমনি কোনো এলাকার ভ্যাট আদায়ের জন্যও একটি লোকাল সার্কেল অফিস আছে। সার্কেল অফিস ডিভিশন অফিসের অধীনে কাজ করে। সার্কেল ও ডিভিশন অফিসের নিয়ন্ত্রক হলো কাস্টমস এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেট। সেখানেও জানালে দ্রুত ফল পাওয়া যায়।

পুলিশের যেমন বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা আছে, তেমনি ভ্যাটের একই ধরণের বিশেষ ও ব্যতিক্রমী কাজ করার জন্য মূসক গোয়েন্দা রয়েছে।
বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে সকলে গুরুত্ব দেয়। আপনি চাইলে এনবিআর, ভ্যাট কমিশনারেটসমূহ ও মূসক গোয়েন্দার ফেসবুক পেইজে ছবিসহ অভিযোগ দিতে পারেন। প্রত্যেক এলাকার ভ্যাট ইউনিটের পৃথক নিবন্ধন নম্বর রয়েছে। এনবিআরের ওয়েবসাইট www.nbr.gov.bd থেকে নম্বর যাচাই করা যাবে।

প্রথম দুই ডিজিট দেখলে বোঝা যাবে ওই ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানটি কোন এলাকার অধীনে। যেমন গুলশান, বনানী, উত্তরা, গাজীপুরের কোনো ব্যবসায়ী হলে তার নিবন্ধন নম্বর ঢাকা (উত্তর) এর কোড ১৮ দিয়ে শুরু হবে। আর মিরপুর, সাভার হলে ঢাকা পশ্চিম এর কোড হবে ১৭ দিয়ে।

ভ্যাট কমিশনারেটগুলোর প্রত্যেকের নিজস্ব ওয়েবসাইট, ফেসবুক পেজ ও ইমেইল আছে। ভ্যাট অফিসে আপনার কোনো দরকার হলে যোগাযোগ করতে পারেন। ভ্যাট নিবন্ধিত বা ভ্যাটযোগ্য প্রতিষ্ঠানের সেলসম্যান আপনাকে ভ্যাট চালান না দিলে, অসহযোগিতা কিংবা দূর্ব্যবহার করলে অথবা ভ্যাট ফাঁকি দিলে সংশ্লিষ্ট ভ্যাট কমিশনারেটে ই-মেইলে অথবা ফেসবুক পেজে জানাতে পারেন। স্থানীয় ভ্যাট কমিশনারেটের নিবন্ধন নম্বরের প্রথম দুই ডিজিট কত দিয়ে শুরু এবং তাদের ওয়েবসাইট, ফেসবুক পেজ ও ইমেইল দেখে নিন।

১. ঢাকা পশ্চিম ১৭ ওয়েবসাইট www.vatdhakawest.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/vatdhakawest

২. ঢাকা উত্তর ১৮ ওয়েবসাইট www.dknvat.gov.bd ইমেইল [email protected], [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/dhakanorthvat

৩. ঢাকা দক্ষিণ ১৯ ওয়েবসাইট www.cevdsc.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/cevdsc

৪.ঢাকা পূর্ব ২১ ওয়েবসাইট www.vatdhkeast.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/vatdhakaeast/

৫. রংপুর ১১ ওয়েবসাইট www.rangpurvat.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/Customs-Excise-VAT-Commissionerate-Rangpur…

৬. রাজশাহী ১২ ওয়েবসাইট www.cevrajshahi.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/cevrajshahi

৭. যশোর ১৪ ওয়েবসাইট www.jessorecustoms.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/Customs-Excise-VAT-Commissionerate-Jessore…

৮. খুলনা ১৫ ওয়েবসাইট www.khulnavat.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/Khulna-vat-723884914395619/

৯. সিলেট ২২ ওয়েবসাইট www.sylhetcustoms-vat.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক Customs Excise & VAT Commissionerate, Sylhet

১০. কুমিল্লা ২৩ ওয়েবসাইট www.cevccomilla.gov.bd ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/Customs-Excise-VAT-Commissionerate-Comilla…

১১. চট্টগ্রাম ২৪ ওয়েবসাইট www.vatchittagong.org ইমেইল [email protected] ফেসবুক www.facebook.com/Customs-Excise-VAT-Commissionerate-Chittag…

১২. Large Taxpayer Unit-LTU VAT Dhaka (অন্য কমিশনারেটের বড় প্রতিষ্ঠান নিয়ে গঠিত) ওয়েবসাইট www.ltuvat.gov.bd ইমেইল [email protected]

১৩. vat intelligence মূসক গোয়েন্দা ওয়েবসাইট http://vatintelligence.gov.bd/ ফেসবুক https://www.facebook.com/vatintelligencebd/

তথ্যসূত্র: অর্থসূচক ডটকম।

শেয়ার করুন:

Facebook
Twitter
Pinterest
LinkedIn

সম্পর্কিত পোস্ট

দেড়শ নারীকে স্বাবলম্বী করছেন ফেরদৌসি পারভীন!

পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ি নারীদের একটা অংশ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু পুঁজির অভাবে অনেকেই উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারছে না। থামি. পিননসহ বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পোশাক প্রস্তুত করতে

উদ্যোক্তাদের জন্য মানসিক চাপ কমানোর কিছু পন্থা

আমরা আজকে উদ্যোক্তাদের জন্য আলোচনা করবো মানসিক চাপ কমানোর পন্থা নিয়ে কারন উদ্যোক্তারা অনেকেই মানসিক চাপ নিয়ে তার উদ্যোগ কে সফলার দিকে নিয়ে যেতে পারে

বাড়ির ছাদে ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী রায়হান!

‘পরিবারে কোনো আর্থিক অনটন ছিল না। পড়েছি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই আমার মতো ছেলে কেন ছাগল পালন করবে, এটাই ছিল মানুষের আপত্তির কারণ। কিন্তু মানুষের সেসব