নারী ডিজাইনারদের নিয়ে উদ্যোগ!

ঢাকার গুলশানে একটি হোটেলে বেশ কয়েক বছর ধরে মেলার আয়োজন করতেন উদ্যোক্তা সাবেরা আনোয়ার। মেলায় অংশ নেওয়া মেয়েদের কাজ দেখে মুগ্ধ হতেন। আর ভাবতেন, সবার সামনে যদি এই কাজগুলোকে তুলে ধরা যায়, তাহলে মেয়েগুলো তো অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে। এই ভাবনা থেকেই গত বছরের আগস্ট মাসে ২৫ জন নারী ডিজাইনারের পোশাক নিয়ে চালু করেন পানাশ হাব।

সাবেরা আনোয়ার পানাশ হাবের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। ঢাকার বনানীর ১৩ নম্বর সড়কে পানাশ হাবে গিয়ে দেখা গেল দেশি কাপড়ে বৈচিত্র্যময় নকশার পোশাকের আয়োজন। প্রায় তিন হাজার বর্গফুটের এ জায়গায় ২৫ জন ডিজাইনার তাদের পোশাক প্রদর্শন করছেন।

সাবেরা আনোয়ার জানালেন, পানাশ হাব শুধু একটি ফ্যাশন হাউস নয়, এটি মেয়েদের একটা প্ল্যাটফর্ম। যেখানে অবহেলিত মেয়েদের জন্য থাকবে নানা ধরনের কাজের সুযোগ। অর্থের অভাবে যারা নিজেদের পোশাকগুলো প্রদর্শনের সুযোগ পায় না, তাদের জন্য পানাশ হাবে থাকছে বিশেষ দুটি তাক। যেখানে তারা কোনো রকম ভাড়া ছাড়াই তাদের পোশাক প্রদর্শন করতে পারবেন।

ভবিষ্যতে নারীদের জন্য এমন নানা পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যেতে চায় পানাশ হাব। খুব তাড়াতাড়িই ধানমন্ডি আর চট্টগ্রামে খোলা হবে পানাশ হাবের আরও দুটি শাখা। এখানে প্রদর্শিত পোশাকের পাশাপাশি যে কেউ চাইলে পছন্দমতো পোশাক বানিয়ে নিতে পারবেন।

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো ডটকম।

শেয়ার করুন:

Facebook
Twitter
Pinterest
LinkedIn

সম্পর্কিত পোস্ট

দেড়শ নারীকে স্বাবলম্বী করছেন ফেরদৌসি পারভীন!

পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ি নারীদের একটা অংশ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু পুঁজির অভাবে অনেকেই উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারছে না। থামি. পিননসহ বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পোশাক প্রস্তুত করতে

উদ্যোক্তাদের জন্য মানসিক চাপ কমানোর কিছু পন্থা

আমরা আজকে উদ্যোক্তাদের জন্য আলোচনা করবো মানসিক চাপ কমানোর পন্থা নিয়ে কারন উদ্যোক্তারা অনেকেই মানসিক চাপ নিয়ে তার উদ্যোগ কে সফলার দিকে নিয়ে যেতে পারে

বাড়ির ছাদে ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী রায়হান!

‘পরিবারে কোনো আর্থিক অনটন ছিল না। পড়েছি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই আমার মতো ছেলে কেন ছাগল পালন করবে, এটাই ছিল মানুষের আপত্তির কারণ। কিন্তু মানুষের সেসব