ইয়ামাহার মোটরসাইকেল কিনতে ব্র্যাক ব্যাংকের লোন!

নতুন বছরে বাইকারদের জন্য নতুন উপহার নিয়ে হাজির হলো বাংলাদেশে ইয়ামাহা মোটরসাইকেলের একমাত্র পরিবেশক এসিআই মোটরস। ইয়ামাহা মোটরসাইকেল ও স্কুটার ক্রেতাদের সহজ ঋণ ও কিস্তি সুবিধা প্রদানের জন্য ব্র্যাক ব্যাংকের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তারা।

চুক্তি অনুযায়ী, ইয়ামাহার মোটরসাইকেলের আগ্রহী ক্রেতাদের ১২ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক। আবেদনের এক-দুদিনের মধ্যেই ঋণের অর্থ হাতে পাবেন ক্রেতারা। ছয় থেকে ২৪ মাসের কিস্তিতে এ সুবিধা পাবেন গ্রাহকরা। এসিআইয়ের সেবাকেন্দ্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে গেলেই ঋণের ব্যাপারে সব সহযোগিতা পাওয়া যাবে।

এসিআই সেন্টারে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসিআই লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (ফিন্যান্স অ্যান্ড প্ল্যানিং) প্রদীপ কর ও ব্র্যাক ব্যাংকের হেড অব রিটেইল ডিভিশন নাজমুর রহিম নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এ চুক্তিকে স্মরণীয় মুহূর্ত উল্লেখ করে এসিআই মোটরসের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর সুব্রত রঞ্জন দাস বলেন, বাংলাদেশে ইয়ামাহা খুবই আলোড়ন সৃষ্টিকারী মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড। আরো নিরাপদ ও গ্রহণযোগ্য বাইক আনার ক্ষেত্রে এ চুক্তি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।

এতদিন শুধু ওপর তলার গ্রাহকরাই ইয়ামাহার মোটরসাইকেল কেনার সামর্থ্য রাখতেন। এখন এ চুক্তির ফলে ইয়ামাহার মোটরসাইকেল সব ধরনের গ্রাহকের ক্রয়ক্ষমতার নাগালে চলে আসবে।

ব্র্যাক ব্যাংকের হেড অব রিটেইল ডিভিশন নাজমুর রহিম বলেন, মোটরসাইকেল শিল্পকে আরো উন্নত করতে ও বাইকারদের আরো সুবিধা দিতেই ব্র্যাক ব্যাংক এ উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Facebook
Twitter
Pinterest
LinkedIn

সম্পর্কিত পোস্ট

দেড়শ নারীকে স্বাবলম্বী করছেন ফেরদৌসি পারভীন!

পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ি নারীদের একটা অংশ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু পুঁজির অভাবে অনেকেই উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারছে না। থামি. পিননসহ বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পোশাক প্রস্তুত করতে

উদ্যোক্তাদের জন্য মানসিক চাপ কমানোর কিছু পন্থা

আমরা আজকে উদ্যোক্তাদের জন্য আলোচনা করবো মানসিক চাপ কমানোর পন্থা নিয়ে কারন উদ্যোক্তারা অনেকেই মানসিক চাপ নিয়ে তার উদ্যোগ কে সফলার দিকে নিয়ে যেতে পারে

বাড়ির ছাদে ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী রায়হান!

‘পরিবারে কোনো আর্থিক অনটন ছিল না। পড়েছি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই আমার মতো ছেলে কেন ছাগল পালন করবে, এটাই ছিল মানুষের আপত্তির কারণ। কিন্তু মানুষের সেসব