মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্টুডেন্ট ভিসা প্রোসেসিং!

সারা পৃথিবী থেকে প্রতিবছর বহু শিক্ষার্থী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে যান।বাংলাদেশেও কোন শিক্ষার্থী যখন বাইরে কোন দেশে পড়তে যাবার কথা চিন্তা করে তাদের প্রথম পছন্দ থাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আপনি যদি আমেরিকাতে স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে চান, তবে প্রথমে আপনাকে ইউএসএর কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কিংবা প্রোগ্রামে ভর্তি হতে হবে।

যখন আপনি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বা প্রোগ্রামে ভর্তি হবার জন্য নির্বাচিত হবেন তখনই কেবল স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ভার্সিটি অথবা কলেজ থেকে স্কলারশিপ নিয়ে অথবা স্কলারশিপ ছাড়াই পড়তে যাবার জন্য, নিদিষ্ট ভার্সিটি অথবা কলেজের মাধ্যমেও স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করা যায়।

ভিসার ধরন: আপনি কোন ধরনের প্রতিষ্ঠানে পড়তে যাচ্ছেন বা আপনার ডিগ্রির ধরনটি কেমন, তার উপর নির্ভর করে দুই ধরণের স্টুডেন্ট ভিসা হতে পারে।

১. এফ-১ ভিসা: আমেরিকা পড়তে যাওয়া অধিকাংশ শিক্ষার্থী এফ-১ ভিসা নিয়ে থাকেন। আপনি যদি আমেরিকার অনুমোদিত কোন স্কুল, কলেজ কিংবা ভার্সিটিতে পড়তে যেতে চান, তবে আপনার দরকার হবে এফ-১ ভিসা।আবার সপ্তাহে যদি আপনাকে পড়ালেখার কাজে সপ্তাহে ১৮ ঘণ্টার বেশি সময় দিতে হয়, তবে আপনাকে এফ-১ ভিসা নিতে হবে।

২. এম-১ ভিসা: আপনি যদি ভোকেশনাল কিংবা কোন ট্রেনিং প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করতে যেতে চান, তবে আপনাকে এম-১ ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে।

শেয়ার করুন:

Facebook
Twitter
Pinterest
LinkedIn

সম্পর্কিত পোস্ট

দেড়শ নারীকে স্বাবলম্বী করছেন ফেরদৌসি পারভীন!

পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ি নারীদের একটা অংশ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু পুঁজির অভাবে অনেকেই উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারছে না। থামি. পিননসহ বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পোশাক প্রস্তুত করতে

উদ্যোক্তাদের জন্য মানসিক চাপ কমানোর কিছু পন্থা

আমরা আজকে উদ্যোক্তাদের জন্য আলোচনা করবো মানসিক চাপ কমানোর পন্থা নিয়ে কারন উদ্যোক্তারা অনেকেই মানসিক চাপ নিয়ে তার উদ্যোগ কে সফলার দিকে নিয়ে যেতে পারে

বাড়ির ছাদে ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী রায়হান!

‘পরিবারে কোনো আর্থিক অনটন ছিল না। পড়েছি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই আমার মতো ছেলে কেন ছাগল পালন করবে, এটাই ছিল মানুষের আপত্তির কারণ। কিন্তু মানুষের সেসব